আজ ৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কুষ্টিয়ায় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর মিছিলে হামলা ও গুলিবর্ষণের অভিযোগ,প্রার্থীসহ আহত ৩০

সাইফ উদ্দীন আল-আজাদ, কুষ্টিয় জেলা প্রতিনিধিঃ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল ইউনিয়নে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মিন্টু ফকিরের মিছিলে গুলিবর্ষণ ও হামলার অভিযোগ উঠেছে নৌকার প্রার্থী মোমিন মন্ডল এবং তার সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এতে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মিন্টু ফকিরসহ কমপক্ষে ৩০জন গুরুতর আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার বেলা বারোটার দিকে ওই ইউনিয়নের দোস্তপাড়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান ওরফে মিন্টু ফকিকের সমর্থকরা কুষ্টিয়া-চুয়াডাঙ্গা মহাসড়ক অবরোধ করে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকালে কয়েক’শ সমর্থক নিয়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী যুবলীগ নেতা মিন্টু ফকির মোটরসাইকেলযোগে নির্বাচনের প্রচারণায় বেরিয়েছিলেন। তারা দোস্তপাড়া বাজারে পৌঁছলে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মোমিন মন্ডলের সমর্থকরা তাদের ওপর হামলা চালায়। এতে প্রার্থী মিন্টু ফকিরসহ বেশ কয়েকজন আহত হন। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে মিন্টু ফকিরের সমর্থকদের সাথে মোমিন মন্ডলের সমর্থকদের সংঘর্ষ শুরু হয়। এক পর্যায়ে মিন্টু ফকিরের সমর্থকদের তাড়া খেয়ে মোমিন মন্ডলের লোকজন ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। মিন্টু ফকিরের সর্মথকদের অভিযোগ, সংঘর্ষের সময় মোমিন মন্ডলের সমর্থকরা বেশ কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে। পরে মিন্টু ফকিরের কয়েকশ’সমর্থক হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে লাঠি সোটা নিয়ে কুষ্টিয়া- চুয়াডাঙ্গা আঞ্চলিক মহাসড়কে অবস্থান নিলে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম চালের মোকাম খাজানগর থেকে দেশের বিভিন্ন জায়গার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া চাল বোঝাই ট্রাকসহ অসংখ্য যানবাহন আটকা পড়ে। প্রায় দুই ঘন্টারও বেশি সময় কুষ্টিয়া-চুয়াডাঙ্গা আঞ্চলিক মহাসড়ক বন্ধ থাকে। পরে পুলিশ লাঠিচার্জ করে তাদের সড়ক থেকে সরিয়ে দিলে পুনরায় যান চলাচল শুরু হয়। বটতৈল ইউনিয়নের নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আহত মিজানুর রহমান ওরফে মিন্টু ফকির জানান, নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় জেনে মোমিন মন্ডল তাদের ওপর পরিকল্পিতভাবে হামলা করে । তিনি সমর্থকদের নিয়ে প্রচারণায় বের হলে মোমিন মন্ডলের ভাই-ভাইপোসহ সমর্থকরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে তাদের ওপর হামলা চালায়। এতে তিনিসহ তার অন্তত ২৫ থেকে ৩০জন জন সমর্থক আহত হয়েছেন। তিনি আরও জানান,তাদের মোটরসাইকেলও ভাংচুর করে হামলাকারীরা। তিনি এ হামলার বিচার দাবি করেন। এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী মোমিন মন্ডলr বলেন, আমি ঘটনার সময় এলাকায় ছিলাম না। উপজেলায় গেছিলাম নির্বাচনের বিষয়ে আলাপ করতে। দোস্তপাড়া মোড়ে আমার অফিসের সামনে মিন্টুর লোকজন এসে আজেবাজে কথা বলে ও নির্বাচনী অফিসে হামলা করে। এ সময় আমার লোকজন তাদের প্রতিহত করে। ঘটনাস্থল থেকে কুষ্টিয়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আতিকুর রহমান জানান, ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছেন। সড়ক স্বাভাবিক হয়ে যান চলাচল শুরু হয়েছে। অভিযোগ দিলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে আগামী ৫ জানুয়ারি বটতৈল ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply

     এই বিভাগের আরও খবর