আজ ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৩রা আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বেনাপোল কাষ্টমে নিরাপত্তা জোরদার কল্পে ফিঙ্গার প্রিন্ট চালু,অবৈধ কার্ডধারীদের প্রবেশ বন্ধ

মোঃ আইয়ুব হোসেন পক্ষী শার্শা উপজেলা প্রতিনিধি : অবৈধ যাতায়াত রুখতে বেনাপোল কাস্টমস হাউস প্রবেশ দ্বারে ফিঙ্গার প্রিন্ট সিস্টেম চালু করেছে কর্তৃপক্ষ।

রোববার (১১ জুলাই) সকাল থেকে ফিঙ্গার প্রিন্ট ব্যবহার করে সিঅ্যান্ডএফ ব্যবসায়ীদের কাস্টমস হাউসে প্রবেশ করতে দেখা যায়। বেনাপোল কাস্টমস গেটের প্রবেশদ্বারে রয়েছে দুটি ফিঙ্গার মেশিন। একটি সিএন্ডএফ মালিকদের, অন্যটি কর্মচারীদের জন্য। যা স্পর্শ করে ভেতরে প্রবেশ করতে হচ্ছে। যাদের ফিঙ্গার প্রিন্ট কাস্টমসে এন্ট্রি করা আছে শুধুমাত্র তারাই প্রবেশ করতে পারবে। বেনাপোল কাস্টমস ব্যবাহারকারী সিএন্ডএফ ৮শ‘ মালিক ও প্রায় ৪ হাজার কর্মচারীদের মধ্যে মাত্র ১৫৩০ জন এন্ট্রি করতে পেরেছেন। লক ডাউনের ফলে বেনাপোলের বাইরের কেউ আসতে পারেনি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বাকীরা এসে ফিঙ্গার প্রিন্ট করে নিতে পারবে বলে কাস্টমস সূত্রে জানা গেছে। এদিকে অনেকে বলেছেন বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে ফিঙ্গার মেশিনের সংস্পর্শ করোনা পজিটিভ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করা দরকার। সে ব্যাপারে জরুরী ভিত্তিতে কাস্টমস কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন বলে তারা বলেছেন।

বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের কাস্টমস বিষয়ক সম্পাদক নাসির উদ্দিন জানান, কাস্টমস হাউসে ফিঙ্গার প্রিন্ট ব্যবস্থায় ব্যবসায়ীরাও খুশি। এতে যেমন নিরাপত্তা জোরদার হবে তেমনি অবৈধ কার্ডধারীদের প্রবেশের কোনো সুযোগ থাকবে না।

বেনাপোল কাস্টমস হাউসের অতিরিক্ত কমিশনার ড. মো: নেয়ামুল ইসলাম জানান, যাদের ফিঙ্গার এন্ট্রি নেই তারা প্রবেশ করতে পারবেন না। তবে যদি কেউ জরুরিভাবে ভেতরে যেতে চাইলে কাস্টমসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অনুমতি সাপেক্ষে প্রবেশ করতে পারবেন। করোনা সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্য বিধি নিশ্চিত করতে কাস্টমসে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা বাড়ানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

     এই বিভাগের আরও খবর