আজ ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মণিরামপুরে সুপেয় পানি সরবরাহে পাইপ লাইন ও সংযোগের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে

মণিরামপুর প্রতিনিধি:
বর্তমান সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনার ছোঁয়ায় সদ্য ঘোষিত প্রথম শ্রেণির মণিরামপুর পৌরসভাটির শত কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন ও চলমান থাকায় বদলে যাচ্ছে পৌর এলাকার অবকাঠামোসহ সার্বিক চিত্র। কিছুদিন পূর্বেও পৌরসভাটির যেসব রাস্তা কাঁচা, আধা-পাঁকা অথবা পাঁকা থাকলেও খানা-খন্দকে ভরা ছিল-সেসব রাস্তা গুলো পাঁকাকরণসহ কিছু-কিছু আবার কংক্রিটে নির্মিত হয়েছে। পৌরশহরের জলাবদ্ধতা দূর করতে নির্মাণ করা হয়েছে এবং চলমাণ রয়েছে আরসিসি ড্রেন। পৌর এলাকায় গভীর নলকূপ, সাবমারসিবল ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা প্রকল্পের ব্যাপক উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন ও চলমান রয়েছে। এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ সড়কে পর্যাপ্ত পরিমাণ বাতি স্থাপন করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে সুপেয় পানি সরবরাহে প্রায় ১১ কোটি টাকা ব্যয়ে ভূগর্ভস্থ থেকে পানি উত্তোলণ, পানি সরবরাহের নতুন পাইপ লাইন স্থাপন ও পাইপ লাইন সংযোগের কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে।
প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় নতুন করে দেশের ২৩টি পৌরসভায় পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন (জিওবি-আইডিবি) প্রকল্প গ্রহণ করেছে। এ প্রকল্পের আওতায় যশোর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে ও মণিরামপুর পৌরসভার তত্বাবধায়নে পৌরসভায় সুপেয় পানি সরবরাহের লক্ষ্যে মণিরামপুর পৌরসভা এলাকায় ৩৪কিমি পাইপ লাইন স্থাপন ও সংযোগের কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে। এ প্রকল্পের কাজ সমাপ্ত হলে পৌর এলাকার অধিকাংশ বাড়িতে জীবানুমুক্ত সুপেয় পানি ও সুস্বাস্থ্য নিশ্চিতকরণ করা সম্ভব হবে।
এই উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখতে এবং নাগরিক সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধিতে পৌর এলাকার সকল শ্রেণিপেশার মানুষের সার্বিক সহায়তা চেয়েছেন মণিরামপুর পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আলহাজ্জ্ব কাজী মাহমুদুল হাসান। তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর বর্তমান সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনার অনুযায়ী গত পাঁচ বছরে পৌরসভার ব্যাপক উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হয়েছে। এসব উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন হওয়ায় পৌর নাগরিকদের সেবার মান বেড়েছে।
পৌরসভার বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন, স্থায়ী কংক্রিটের সড়ক ও ড্রেন নির্মাণ, সড়কবাতি স্থাপন, পৌরবাসীর সুপেয় পানি সরবরাহে চলমাণ নতুন পাইপ লাইনসহ ইলেক্ট্রো পাম্পহাউজ স্থাপনের কাজ চলমান রয়েছে। এছাড়া পৌর এলাকার মসজিদ-মাদ্রাসা সংস্কার ও উন্নয়নসহ যেসব এলাকার পানি সরবরাহের ব্যবস্থা নেই সেসব এলাকায় গভীর নলকূপ ও সাবমারসিবল স্থাপনের পাশাপাশি দরিদ্র জনগোষ্ঠীর পরিবারগুলোর মধ্যে স্বাস্থ্যসম্মত ল্যাট্রিন স্থাপন করা হয়েছে। করোনা প্রতিরোধেও পৌরশহরের জনসচেতনমূলক কাজসহ কর্মহীন ও দুস্থ পরিবারগুলোকে দেওয়া হয়েছে মানবিক সহায়তা।
মণিরামপুর পৌরসভার নাগরিক বিশিষ্ট আইনজীবি অ্যাড. বশির আহমেদ খান বলেন, ‘সরকার রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়নের লক্ষে গ্রামীণ ও শহর অবকাঠামো নির্মাণ, নিরাপদ পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিস্কাশন এবং স্যানিটেশন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। ২০১৯ সালে ৭ জানুয়ারী শেখ হাসিনা চতুর্থবারের মত গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়ে দেশের সার্বিক উন্নয়নে জননেত্রী স্থানীয় সরকারের উপর বেশি প্রাধান্য দিয়েছেন। কারণ স্থানীয় সরকার যত শক্তিশালী হবে, জনগণও তত বেশি সেবা পাবে। ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশনগুলোতে নির্বাচিত প্রতিনিধিরা তাঁদের কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। গুরুত্বপূর্ণ কোন এলাকায় কোনও সড়ক কাঁচা বা ভাঙ্গাচোরা থাকবে না। সরকারের এ উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় মণিরামপুর পৌরসভায় ব্যাপক উন্নয়নের কাজ এগিয়ে যাচ্ছে। পৌরসভার চলমাণ প্রকল্পের কাজ সমূহ সম্পূর্ণ সমাপ্ত হলে আধুনিকতার ছোয়ায় পাল্টেট যাবে মণিরামপুরের চিত্র। মণিরামপুর পৌরসভা একটি আধুনিক পৌরসভা হিসেবে স্থান পাবে। এতে করে পৌর নাগরিকসহ বাইরে থেকে আগত মানুষ স্বাচ্ছন্দে চলাফেরা করতে পারবে। যার সুফল আমরা ইতোমধ্যেই মণিরামপুর পৌরসভা বাসি হিসেবে পেতে শুরু করেছি। সুতরাং সার্বিক উন্নয়ন, শান্তি ও স্থিতিশীলতার ক্ষেত্রে জননেত্রী শেখ হাসিনাসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়, মণিরামপুর পৌরসভার জনপ্রতিনিধিদ্বয়কে ধন্যবাদ দিতে পারি।’
পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্জ্ব অধ্যক্ষ কাজী মাহমুদুল হাসান বলেন জানান, ‘পৌরশহর ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প, গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও আরসিসি ড্রেন নির্মাণ ও নতুন নির্মাণের প্রকল্প হাতে নেয়াসহ গত ৫ বছরে শত কোটি টাকা ব্যয়ে অবকাঠামোগত প্রকল্পের ব্যাপক উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন ও চলমান রয়েছে। ইনসাল্লাহ চলমান কাজগুলো সম্পূর্ণ বাস্তবায়ন হলে পৌর এলাকপূর্ণ সুযোগ-সুবিধা পাবার সাথে-সাথে বদলে যাবে মণিরামপুর পৌরসভার চিত্র।
পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী শেখ স্যাইয়েদুল হক বলেন, ইতোমধ্যে সূপীয় সরবরাহের লক্ষে পৌর এলাকার মোহনপুর, তাহেরপুর, কামালপুর, বিজয়রামপুর, মণিরামপুর ও হাকোবা এলাকায় পাইপ লাইন স্থাপন ও সংযোগের কাজ প্রায় ৪০ ভাগ শেষ হয়েছে। আশাকরি মেয়াদের পূর্বেই সম্পূর্ণ কাজ শেষ হবে।

Leave a Reply

     এই বিভাগের আরও খবর