আজ ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বার্সেলোনাকে পেছনে ফেলা হলোনা রিয়ালের

বার্সেলোনাকে পেছনে ফেলে এগিয়ে যাওয়া হলোনা রিয়ালের। ভিনিসিয়াসের শেষ মুহূর্তের গোলে হার এড়ালো লস ব্লাঙ্কোরা। রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করলো রিয়াল মাদ্রিদ।

এস্তাদিও আলফ্রেডো ডি স্টেফানোতে অনেকদিন পর নির্ভার জিনেদিন জিদান। কারণটা যতটা না, ইনজুরি ফেরত মার্সেলো, রদ্রিগোরা, তার চেয়ে অনেক বেশি প্রতিপক্ষের ঘরে সোসিয়েদাদের নাম থাকায়। ঘরের মাঠে শেষ ১১ দেখার দশ ম্যাচেই জয়ী দল লস ব্লাঙ্কোরা। এর মধ্যে তিনটি তো জিজুর অধীনেই।

তাই বলে, দলকে নিয়ে কোন পরীক্ষা নিরীক্ষায় যাননি ফরাসী বস। ৪-৩-৩ এই মাঠে নামান মদ্রিচ-ইসকোদের। মূলত আটালান্টার বিপক্ষের স্কোয়াডতাকেই অপরিবর্তীত রাখেন তিনি। অন্যদিকে এক ফোঁটা ছাড় দেবার পাত্র নয় আলগুয়াসিল। ৪-২-৩-১ এ চ্যালেঞ্জ জানায় মাদ্রিদিস্তাদের।

ম্যাচ শুরু হতে অবশ্য চিন্তার ভাঁজ পরে জিদানের কপালে। মাঝ মাঠের দখল নিতে হিমশিম খেতে থাকে তার শিষ্যরা। এর মাঝে ২২ মিনিটে পালটা আক্রমণে উঠে রিয়াল। কিন্তু, মদ্রিচ, ভাস্কুয়েজ, অ্যাসেনসিও, ডিয়াজে’র চতুর্মুখী আক্রণেও গোলের দেখা পায়নি স্বাগতিকরা। ডিফেন্স চেড়া শেষ স্পর্শটা যে করতে পারেন নি কেউই।

৩৫ মিনিটে আবারো সুযোগ এসেছিলো জিদান শিষ্যদের সামনে। কিন্তু এবার ভিলেন টনি ক্রুস। ইস্কোর বাড়ানো বল নিয়ে ডি বক্সে ঢুকলেও, নিশানাবাজিতে নিঁখুত হতে পারেননি জার্মান মিডফিল্ডার। কর্ণারে রক্ষা পায় সোসিয়েদাদ। ফলাফল, নিষ্ফলা প্রথমার্ধ্ব।

ফিরে এসেই এগিয়ে যেতে পারতো সোসিয়েদাদ। কিন্তু থিবো কর্তোয়ার গ্লাভস থেকে বল বের করতে পারেননি ফরোয়ার্ডরা। উলটো শুনতে হয়েছে রেফারির ভর্ৎসনা।

সেটাই মনে হয় তাতিয়ে দেয় অতিথিদের। এরপর ৫৫ মিনিটে যেটা হয়, তার জন্য একটুও প্রস্তুত ছিলোনা রিয়াল শিবির। বাঁ পাশ থেকে নাচো মনরিলের পা থেকে উড়ে আসা বলে দুর্দান্ত এক হেড করেন পর্তু। চেয়ে চেয়ে দেখা ছাড়া কিছুই করার ছিলোনা কর্তোয়ার। ১-০ গোলে পিছিয়ে যায় রিয়াল মাদ্রিদ।

গোল খেয়ে কিছুটা নড়েচড়ে বসে রিয়াল। কিন্তু খুব একটা যে লাভ তা’তে হয়েছে তা কিন্তু নয়। টনি ক্রুজের শট সেই উড়ে যায় ক্রসবার উঁচিয়েই। কয়েকবার চেষ্টা করেছিলেন ক্যাসিমিরো। কিন্তু অন টার্গেটে রাখতে পারেন নি একবারও।

তবে এক ব্রাজিলিয়ান না পারলেও, পেরেছেন আরেকজন। সমন্বিত আক্রমণের ফল স্বরূপ ৮৯ মিনিটে রিয়ালের হয়ে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র। স্বস্তির সমতা ফিরে পায় মাদ্রিদ।

এ ড্রয়ের ফলে, পয়েন্ট টেবিলে সমান ৫৩ পয়েন্ট রিয়াল-বার্সার। আর এক ম্যাচ কম খেলেই ৫ পয়েন্টে এগিয়ে অ্যাতলেটিকো।

নামায ও ইফতারের সময়সূচীঃ

সেহরির শেষ সময় - ভোর ৪:২১ পূর্বাহ্ণ
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ৬:২৮ অপরাহ্ণ
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:২৬ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০৬ অপরাহ্ণ
  • ৪:৩৪ অপরাহ্ণ
  • ৬:২৮ অপরাহ্ণ
  • ৭:৪৪ অপরাহ্ণ
  • ৫:৪১ পূর্বাহ্ণ

Leave a Reply

     এই বিভাগের আরও খবর