আজ ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বাংলাদেশের প্রশংসা নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের

কোয়ারেন্টিনে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের আচরণে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড ও দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। জানিয়েছেন বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস। আইসোলেশনে থাকলেও, মানসিকভাবে ক্রিকেটাররা চাঙ্গা আছেন বলে জানিয়েছেন দলের সঙ্গে থাকা এই বোর্ড কর্তা। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ৪ মার্চ থেকে গ্রুপে ভাগ হয়ে অনুশীলন শুরু করবে ক্রিকেটাররা।

নিউজিল্যান্ডে কড়া নিয়মের মধ্যে দিয়ে দিন পার করছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফরা। প্রায় সপ্তাহ পার হতে চললো, এখনো অনেকটা ঘরবন্দি হয়েই দিন পার করছেন সবাই।

তবে স্বস্তির কথা হলো এখন পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডে কোনো অনাকাঙ্খিত ঘটনার মুখোমুখি হতে হয়নি বাংলাদেশ দলকে। সম্প্রতি নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে কোভিড প্রোটোকল ভাঙ্গায় সমালোচনা হয়েছিলো পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে নিয়ে। এদিক বাংলাদেশ দলের অভিজ্ঞতা হয়েছে উল্টো। বাংলাদেশ দলের প্রশংসা করেছে নিউজিল্যান্ড।

এ প্রসঙ্গে বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস বলেন, আমরা সবাইকে সতর্ক করে দিয়েছিলাম। কোনো ক্রমেই যেনো মাস্ক ছাড়া ঘর থেকে বের না হয়। খাওয়া নিতেও মাস্ক ছাড়া যাওয়া যাবে না। মাস্ক ছাড়া বাইরে না যেতে বারবার বলা হয়েছে। সবাই সেই প্রটোকল মেনে চলছে। আজ সকালে নিউজিল্যান্ড বোর্ড ও স্বাস্থ্য বিভাগের সাথে আমাদের কথা হয়েছিলো। তারা আমাদের সব কিছুতেই সন্তুষ্ট। এখন পর্যন্ত তাদের নির্ধারিত প্রটোকলে কোনো ব্যাত্যয় ঘটেনি।

টানা আইসোলেশনে থাকাটা কিছুটা একঘেয়ে। দিনে দু’বার ৩০ মিনিটের জন্য ঘর থেকে বের হবার সুযোগ পান ক্রিকেটার-কোচিং স্টাফরা। এমন অভিজ্ঞতা সবার জন্য নতুন হলেও, মানসিকভাবে চাঙ্গা আছেন সবাই।

জালাল ইউনুস জানান, টাইম জোনের তারতম্যের জন্য অনেকের ঘুমের সমস্যা হচ্ছে। তবে আমার মনে হয় অনুশীলন শুরু হলে এটা ঠিক হয়ে যাবে। এখানে খাওয়া দাওয়া ভালো কোনো অভিযোগ নাই। বাইরে থেকেও খাওয়া আনা যায়। মানসিকভাবে সবাই ভালো আছে। গ্রুপ করে দেখা হয়। প্রতিদিন এক গ্রুপ থাকে না।

আইসোলেশনের শেষ দিকে বাংলাদেশ দল। এখন অপেক্ষা অনুশীলন শুরুর। সব ঠিক থাকলে আগামী বৃহস্পতিবার থেকেই মাঠে নামার সুযোগ পাবে তামিম-মুশফিকরা।
জালাল ইউনুস বলেন, সবাই চাচ্ছে অনুশীলন শুরু করতে। সবাই চায় বাইরের কন্ডিশনে গিয়ে নক করতে। আশা করছি খুব শিগগিরই সেটা করতে পারবো।

আগামী ১০ তারিখ কুইন্সটাউনে পুরো দল নিয়ে অনুশীলন করার সুযোগ পাবে বাংলাদেশ।

নামায ও ইফতারের সময়সূচীঃ

সেহরির শেষ সময় - ভোর ৪:২১ পূর্বাহ্ণ
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ৬:২৮ অপরাহ্ণ
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:২৬ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০৬ অপরাহ্ণ
  • ৪:৩৪ অপরাহ্ণ
  • ৬:২৮ অপরাহ্ণ
  • ৭:৪৪ অপরাহ্ণ
  • ৫:৪১ পূর্বাহ্ণ

Leave a Reply

     এই বিভাগের আরও খবর