আজ ৯ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভূরুঙ্গামারী উন্নয়ন সংস্থা ২০২১ সালের যেসকল কাজ করতে যাচ্ছে

আরিফুল ইসলাম জয় ভূরুঙ্গামারী কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রাম জেলার ভূরুঙ্গামারী উপজেলার একটি অরাজনৈতিক সংগঠন ভূরুঙ্গামারী উন্নয়ন সংস্থা। শুরু থেকেই সংস্থাটি নদি ভাঙ্গন রোধে মানব , মাস্ক বিতরণ, ক্রিকেট টিমকে ব্যাট, জার্সি উপহার, টি শার্ট উপহার, বন্যা দুর্গতদের সাহায্য, গৃহ নির্মাণ, বিজয় দিবস ফুটবল টুর্নামেন্ট, সাধারণ জ্ঞান প্রতিযোগিতা সহ বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়ন মুলক কাজ করে আসছে তারই ধারাবাহিকতায় ২০২১ সালের উন্নয়ন মুলক যে সকল পরিকল্পনা করেছেন সে বিষয়ে সংস্থাটির প্রচার সম্পাদক শামীম হোসেন দৈনিক প্রত্যাহ বার্তা প্রতিনিধিকে জানান ১। শিক্ষা সেক্টরঃ শিক্ষা সেক্টরে ১০ টি ইউনিয়নে বিভিন্ন স্কুলে সাধারণ জ্ঞান ক্লাব তৈরি,সেই ক্লাব গুলোতে সাধারণ জ্ঞানের বই বিতরন কার্যক্রম,বিতর্ক প্রতিযোগিতা,উপস্থিত বক্তব্য সহ আনুমানিক ১০০০ জন শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত করবো ইনশআল্লাহ।যা অলরেডি আমরা কার্যক্রম শুরু করে দিয়েছি।শিক্ষার্থীদের মানবিক গুণাবলী উন্নতি করণ,খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক চর্চা,সাহিত্যিক চর্চা সহ এক্সটা কারিকলাম নিয়ে ১০০ জন শিক্ষকদের কে প্রশিক্ষণ এর ব্যাবস্থা করবো ইনশআল্লাহ। ২। খেলাধুলা / ক্রীড়াঃ ভুরুঙ্গামারী উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নে সকল খেলার মাঠ সচল করতে যাচ্ছি।সকল ধরনের খেলাধুলা প্রত্যকটি মাঠে সচল থাকবে যে কার্যক্রমটি বর্তমান চালু রয়েছে।প্র্যতেকটি ইউনিয়নে ক্রীড়া কমিটি তৈরি,সেই কমিটি দ্বারা তাদের মনিটরিং এবং খেলার সকল ধরনের সরঞ্জাম ভুরুঙ্গামারী উন্নয়ন সংস্থা প্রদান করবে।হারিয়ে যাওয়া খেলাধুলা গুলো পুণরায় ফিরিয়ে এনে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরারও সুব্যাবস্থা করবে। ৩।সাংস্কৃতিক চর্চাঃ ভুরুঙ্গামারীতে এ বছর ৬ টি সাংস্কৃতিক দল গঠন করা হবে।তারা সকল ইউনিয়নে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড পরিচালিত করবে। তাদের মাধ্যমে হারিয়ে যাওয়া ভাওয়াইয়া,লোকগীতি, পল্লীগীতি,গীত ইত্যাদি কার্যক্রম গুলো চালু থাকবে।তাছাড়া নাটক,অভিনয় নৃত্য সহ হারানো দিনের গানের চর্চা সহ সকল কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।পুরাতন শিল্পকলা সহ নতুন করে শিল্পকলা সংযোজন করে সকল ধরনের শিল্পীদের সাথে মতবিনিময় ও পরিকল্পনা মাফিক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। ৪। মাদক বিরোধী /বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ কমিটি গঠনঃ প্রত্যেকটি খেলার মাঠে মাদক / বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হবে,১০ টি ইউনিয়নে প্রগতিশীল, সুশীল সমাজ যুবক সমাজের সাথে সমন্বয় করে স্থানীয় প্রশাসনের সাথে ঐক্য হয়ে মাদক / বাল্য বিবাহ সহ সামাজিক অবক্ষয় প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হবে। ৫। কৃষিঃ কৃষি ভিত্তিক সকল কার্যক্রম প্রত্যেকটি ইউনিয়ন থেকে ওয়ার্ড পর্যায়ে কার্যক্রম চালু থাকবে।এবছর ১০ টি নতুন প্রযুক্তি কৃষি সরঞ্জাম এর ব্যাবস্থা করা হবে।১০০০ পরিবারের বসত ভিটায় শাকসবজি,লাউ,মিষ্টি কুমড়ার চাষ করা হবে। বিভিন্ন ধরনের বীজ প্রদান করা হবে বসতভিটায় সবজী চাষে আগ্রহীগণকে।বসতভিটায় সবজী চাষের কার্যক্রমটি চালু রয়েছে। ৬। ত্রাণ/পুর্নবাসনঃ ত্রাণ এবং পুর্নবাসনের কার্যক্রম সংগঠন এর পক্ষ থেকে চালু করা হয়েছে।গত বছর বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ এবং ১০ টি পরিবারের ঘর তৈরির সরন্জাম প্রদান করা হয়েছে।এবছর ও সেই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।শীত বস্ত্র বিতরণ সহ সকল কার্যক্রম ত্রাণ ও পুর্ণবাসন কমিটি আওতাধীন পরিচালনা করা হবে। ৭। আত্মকর্মসংস্থানঃ এলাকার তরুণ যুবক সমাজ কে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ এর মাধ্যমে আত্মকর্মসংস্থান এর সুযোগ সৃষ্টি করার কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে যা খুব তাড়াতাড়ি শুরু হতে যাচ্ছে।১০ টি ইউনিয়নে এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। ৮। চিকিৎসা /স্বাস্থ্যঃ ১০টি ইউনিয়নের সকল কমিউনিটি ক্লিনিক, ইউনিয়ন স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র গুলোর সাথে সমন্বয় করে ফ্রি ক্যাম্পিং সেবা প্রদান করা সুব্যাবস্থা করবে আমাদের সংগঠনটি।সেই ক্ষেত্রে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এবং উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সমন্বয় করে কার্যক্রম প্রস্তুত করা হবে। ৯। গুণীজন সংবর্ধনাঃ ভুরুঙ্গামারীর প্রত্যেকটি ইউনিয়ন এর সকল গুণীজনদের সংবর্ধনায় আওতায় আনা হবে। গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সিলেকশন কমিটি তৈরি করা হবে। ১০। বিবিধঃ উপরিউক্ত কার্যক্রম গুলো ছাড়াও সমাজ উন্নয়নে সকল ধরনের সামাজিক কার্যক্রম গুলো চালু থাকবে ইনশাআল্লাহ। সেই সাথে ভুরুঙ্গামারীর সকল সমাজিক সংগঠন এর সাথে ঐক্য হয়ে কাজ করার আহবান জানান।

Leave a Reply

     এই বিভাগের আরও খবর

মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।

মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা।