আজ ২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

১৬ জানুয়ারি সারাদেশে সমাবেশের ঘোষণা বিএনপির

দশ দফা দাবি বাস্তবায়ন এবং বিদ্যুতের মূল্য কমানোর দাবিতে ১৬ জানুয়ারি সারাদেশে জেলা ও উপজেলায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করবে বিএনপি।

বুধবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গণঅবস্থান কর্মসূচি থেকে এ ঘোষণা দেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

বলেন, আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন সরকারের পদত্যাগতসহ ১০ দফা দাবিতে আগামী ১৬ জানুয়ারি পৌরসভা, উপজেলা, জেলা, মহানগর ও কেন্দ্রীয়ভাবে এই কর্মসূচি পালন করা হবে।

এ সময় আওয়ামী লীগ দেউলিয়া রাজনৈতিক দলে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বললেন, আওয়ামী লীগ সম্পূর্ণভাবে রাজনৈতিক অস্তিত্ব হারিয়েছে। গণবিচ্ছিন্ন হয়ে পুলিশ ও আমলাদের ওপর নির্ভর করছে।

মির্জা ফখরুল জানিয়েছেন, এদিন ফরিদপুর ও ময়মনসিংহে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে হামলা করা হয়েছে। চলমান আন্দোলনে এখন পর্যন্ত ১৫ জন নিহত হয়েছেন। অসংখ্য নেতাকর্মী অবর্ণনীয় ও অমানবিক অবস্থায় কারাগারে রয়েছেন বলেও উল্লেখ করেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, অবিলম্বে সরকারকে পদত্যাগ ও সংসদ বিলুপ্ত করতে হবে। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, সাধারণ মানুষ আজ বলছে- তারা আর পারে না। চাল কিনতে পারে না। খাদ্য কিনতে পারে না। ওয়াসার এমডি আমেরিকায় ১৪টি বাড়ি কিনেছে। তিনি কত হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছেন? আজকে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। তারা সব ব্যাংক লুটে ফোকলা করে দিয়েছে। সরকারের লুটের রাজ্য গড়ে তুলেছে। তাদের লক্ষ্য হচ্ছে সবকিছুকে নিয়ন্ত্রণ করে আবারও একদলীয় শাসন কায়েম করা। আমরা সেটা হতে দিবে না! আমরা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করব। আমাদের নেতা দেশনায়ক তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনতে হবে। আজকে জনগণ জেগে উঠেছে। সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা জেগে উঠেছে। গণমাধ্যমও ভূমিকা রাখছে।

তিনি বলেন, আমাদের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করেও ১০ ডিসেম্বর ঢাকার গণ-সমাবেশ বানচাল করা যায়নি। ঢাকাসহ দেশের মানুষ সফল করেছেন। আসুন আমরা ৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে নতুন প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য দেশ গড়তে ঐক্যবদ্ধ হই। 

Leave a Reply

     এই বিভাগের আরও খবর