আজ ২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

অধিক চাহিদা জীবনের জন্য ক্ষতিকর


মোঃ জাবেদুল ইসলাম :-

পৃথিবীর সৃষ্টির পরে মানুষের আগমন ঘটে। প্রথম মানুষ ক্ষিধে নিবারন করতো গাছের ফলমুল খেয়ে। লজ্জা নিবারন করা শিখলো পশুর চামড়া এবং গাছের পাতা, ছাল বাকল দিয়ে। নিরাপদ আশ্রয়ে বিশ্রাম নিতো, পাহাড়ের গুহায় আর জংগলে। কালের বিবর্তনে মানুষের পরিবর্তন ঘটে এবং মানুষ চাহিদা মেটাতে অনুভব করতে চায়। মানুষের মাঝে বিনিময় দেখা দেয়। একজনের কাছে কাঁঠাল আছে, অন্যজনের কাছে লিচু আছে। সে কাঁঠাল দিয়ে লিচু নিলো। আবার একজনের কাছে ধান আছে, আর একজনের কাছে পাট আছে। তারা ধান এর পরিবরতে পাট, পাটের পরিবরতে ধান বিনিময় করে তারা নিজেদের চাহিদা মেটাতে সক্ষম হয়। কিছু কাল পরে আবার মুদ্রার প্রচলোন ঘটে। মুদ্রা বহনকরা কষ্ট সাধ্য। পরে কাগজের টাকা, ডলার, রিয়াল দেশ ভেদে বিভিন্ন নামে মুদ্রার নাম দেয়া হয়। বিবর্তন পরিবর্তন এর সাথে সাথে দেখা যায় মানুষের মাঝে বিনিময় ও চাহিদার আকষণটা বাড়তে থাকে। টাকা ছাড়া কিছু হয় না। মানুষের শিক্ষা, জাতায়াত, চিকিৎসা, বাসস্থান ও জীবন ধারণ করতে প্রয়োজন হয় শুধু টাকার, জীবন কে সুন্দর ভাবে গড়ে তুলতে প্রয়োজন হয় টাকার। আবার বেশি টাকা থাকলে, রাতে ঘুম হয় না, কখন চোর, ডাকাত বা দুষ্কৃতিকারী, হামলা করে। আপন জন্মদাতা সন্তানেরা ভাগবাটোয়া নিয়ে নিজেরা নিজেরাই হানাহানি এবং খারাপ কাজে লিপ্ত হয়। মানুষ হয় অমানুষ। টাকার দাপটে সে অহংকারী হয়, অবহেলিত জনগোষ্ঠীর উপর প্রভাব খাটায়, নিরীহ মানুষের উপর আক্রমণ চালায়। বেশী টাকার কারনে মানুষ নষ্ট হয়ে জায়। টাকার বিনিময়ে মানুষ খারাপ কাজ করতে দিধাবোধ করে না। নেশার তারনায় মত্য হয়ে পড়ে। টাকার লোভে দুষ্কৃতকারী, চোর, ডাকাত, গুন্ডা, বদমায়েশি আচরন করতে পারে। টাকা মানুষের জীবনের জন্য জতুটুকু প্রয়োজন হয়, টাকা ঠিক ততটুকুই থাকাই আবশ্যক। এর বেশী কিছু নয়। অধিক চাহিদা না থাকাই ভালো। এতে মানুষের জীবনে সুখ শান্তি সমৃদ্ধি বয়ে আনবে।

Leave a Reply

     এই বিভাগের আরও খবর